Simple Hacks: মহার্ঘ জ্বালানি, এই কৌশল জানলে গ্যাস-সিলিন্ডার বেশি দিন চালানো যায়!

হাইলাইটস

  • ভর্তুকি বাদ দিয়েও মূল অঙ্কটা খুব কম নয়। তা ছা়ড়া ভর্তুকির টাকা ব্যাঙ্কের নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে ঢোকে একটি নির্দিষ্ট সময়ে।
  • কিন্তু সিলিন্ডার কেনার সময়ে এককালীন পুরো টাকাটা বার করতে হয় গৃহস্থকেই।
  • ইতিমধ্যেই অনেক নিম্ন-মধ্যবিত্তর ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গিয়েছে মহার্ঘ জ্বালানি।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: এই মাসে গৃহস্থের কপালে ইতিমধ্যেই ভাঁজ বাড়িয়েছে রান্নার গ্যাসের দাম। নতুন বছরে সংসার খরচের সঙ্গে রান্নার গ্যাসের জন্য গুণতে হচ্ছে বেশ মোটা টাকা।

ভর্তুকি বাদ দিয়েও মূল অঙ্কটা খুব কম নয়। তা ছা়ড়া ভর্তুকির টাকা ব্যাঙ্কের নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে ঢোকে একটি নির্দিষ্ট সময়ে। কিন্তু সিলিন্ডার কেনার সময়ে এককালীন পুরো টাকাটা বার করতে হয় গৃহস্থকেই। ইতিমধ্যেই অনেক নিম্ন-মধ্যবিত্তর ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গিয়েছে মহার্ঘ জ্বালানি।

রান্নাঘর সামলাতে গিয়ে মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্তের প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে পড়েছে। একটি গ্রাফ বলছে গত একবছরে LPG সিলিন্ডারের দাম ক্রমেই বেড়েছে। পরিসংখ্যান অনুসারে বলা যায় গত একবছরে ভর্তুকিহীন ১৪.২ কেজির LPG সিলিন্ডারের দাম বেড়েছে ২৩২ টাকা।
ভর্তুকি বাদ দিয়েও মূল অঙ্কটা খুব কম নয়। তা ছা়ড়া ভর্তুকির টাকা ব্যাঙ্কের নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে ঢোকে একটি নির্দিষ্ট সময়ে। কিন্তু সিলিন্ডার কেনার সময়ে এককালীন পুরো টাকাটা বার করতে হয় গৃহস্থকেই।

প্রতীকী ছবি

তাই প্রতি মাসে ভর্তুকির মুখ চেয়ে বসে না‌ থেকে একটু সতর্কতা অবলম্বন করলেই অনেকটা গ্যাস সাশ্রয় করা যায়। এতে বরং সিলিন্ডার একটু বেশি দিন চালানো যায় আর সেই সঙ্গে টাকাও বাঁচে। গ্যাস বাঁচানো নিয়ে অনেকেরই কিছু ভুল ধারণা আছে। তাতে সিলিন্ডার বাঁচে কম, শ্রম বাড়ে বেশি। বরং একটু বুদ্ধি খাটিয়ে সিলিন্ডার খরচ করলে রান্নার গ্যাস বাঁচাতে পারেন অনেকটাই।

এখন মনে করছেন, কী ভাবে তা সম্ভব? দেখে নিন টিপ্‌স-

  • আপনি যে খাবারটি রান্না করবেন তার জন্য সব কিছু আগে থেকে মজুত করে রাখুন। রান্না হওয়ার আগে সমস্ত সবজি কেটে রাখুন এবং মশলাপাতি হাতের কাছে এনে গুছিয়ে রাখুন।

  • যা রান্না করবেন তা সর্বদা ঢেকে রান্না করার চেষ্টা করুন। এর ফলে রান্না তাড়াতাড়ি হয়েও যায় এবং গ্যাসও তুলনামূলক ভাবে কম খরচ হয়।

  • রান্নায় তরি-তরকারি সিদ্ধ হওয়ার জন্য জল দিতে লাগে, তবে সেই জল আগে থেকে গরম করে নিয়ে রান্নায় দিন। ঠান্ডা জল রান্নায় দিলে রান্নার তাপমাত্রা কমে যায়।এর ফলে রান্নাও খারাপ হয় গ্যাসও বেশি লাগে।

  • আভেনে কড়াই বসাবার আগে তা ভালো করে মুছে নিন । অনেক সময় ভেজা বাসন আভেনে বসালে তা গরম হতে বেশ সময় লাগে। এর ফলে গ্যাসের খরচা স্বাভাবিকের থেকে বেশিই হয়।

  • রান্নার পাত্র হিসেবে প্রেশার কুকার ব্যবহার করুন। এতে সময়ও কম লাগে এবং গ্যাসও কম খরচ হয়।

  • গ্যাসের রেগুলেটার, গ্যাসের পাইপ এবং গ্যাসের চাবি নিয়মিত পরীক্ষা করুন। অনেক সময় গ্যাসের পাইপে ছিদ্র হয়ে থাকে যা আমাদের চোখে পড়ে না, সেখান থেকে গ্যাস লিক হয়ে গ্যাস অপচয় হতে থাকে। এর থেকে বড় বিপদের ঝুঁকিও থেকে যায়। সবসময় খেয়াল করে রান্নার শেষে গ্যাসের চাবি বন্ধ করে দিন।

  • খাবার বা শাক-সবজি ফ্রিজে রাখা থাকলে তা গরম করার আগে কিছুক্ষন বাইরের তাপমাত্রায় রেখে দিন। ঠান্ডা খাদ্যদ্রব্য সরাসরি আভেনে বসিয়ে দিলে তা গরম হতে কিংবা সিদ্ধ হতে সময় বেশি লাগে।

  • রান্নার সময় কড়াই বা বদল করার সময় রান্নার গ্যাস বন্ধ করে দিন।

  • যে পদ রান্না করছেন তা অল্প আঁচে রান্না করলে গ্যাসের অপচয় কম করা যায়।

  • এই উপায় গুলো মেনে চললেই আপনি ফল পেয়ে যাবেন হাতেনাতে। এই বহুমূল্যের বাজারে খুলে যাবে সাশ্রয়ের এক নতুন দিক।এতে গ্যাসের অপচয় বন্ধ হয়ে আরও অনেকদিন চলতে থাকবে গ্যাস সিলিন্ডার।
ei samay

প্রতীকী ছবি

We want to give thanks to the writer of this post for this remarkable content

Simple Hacks: মহার্ঘ জ্বালানি, এই কৌশল জানলে গ্যাস-সিলিন্ডার বেশি দিন চালানো যায়!

Wyomingnetworknews.com